সত্যের খাতিরে ঘড়িটি "বেজে চলেছে" কথাটি বলা হচ্ছে। আসলে ঘণ্টাটি বাজার শব্দ কারো কানে পৌঁছায় না। কারণ ঘণ্টাটিকে একটি কাচের জারের মধ্যে রাখা রয়েছে। জারের কাছে কান নিয়ে গেলে এর কম্পন অনুভব করা যায়। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লেয়ারনডন ল্যাবরেটরির একটি ঘণ্টা ১৭৫ বছর ধরে বেজে চলেছে।

এ ব্যাপারে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম কিউরিওসিটি.কম-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানায়, এই ঘটনার পিছনে রয়েছে এক "আপাত অক্ষয় ব্যাটারি"-র কেরামতি। ১৮৪০ সাল থেকে এই ব্যাটারি বাজিয়ে চলেছে ঘণ্টাটিকে।

জানা গেছে, টেকনোলজির ভাষায় এই ব্যাটারিটিকে “ড্রাই পাইল“ বলা হয়। এটি বিশ্বের প্রথম কয়েকটি ইলেক্ট্রিক ব্যাটারির অন্যতম। এতে ব্যবহৃত হয়েছিল রুপা, দস্তা, গন্ধক, এমনকি, মুলো ও বিটের টুকরোও। আরও কি কি এই ব্যাটারির ভিতরে রয়েছে, তা জানা যায় না আজ।

গবেষকরা এই ব্যাটারি খুলে পরীক্ষা করতে চাইলে সরাসরি না বলে দেওয়া হয়। কারণ, বেশি ঘাঁটাঘাঁটি করলে এটি নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে আজও রহস্যের সমাধান হয়নি।